বৃহঃস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২

মানব বার্বি হতে গিয়ে…

শেয়ার করুন

নিজেকে ‌‘মানব বার্বি’ বানাতে ২১ বছরের এক তরুণী প্ল্যাস্টিক সার্জারিতে ব্যয় করেছেন ৭৩ হাজারের বেশি মার্কিন ডলার। যা বাংলাদেশি ৬৩ লাখ টাকার বেশি। আর নিজের নাটকীয় এই রূপান্তর ঘটাতে গিয়ে পুরো পরিবারের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

জার্মান-বংশোদ্ভূত জেসিকা এখন জেসি বানি নামে নিজের পরিচয় দেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামের বায়োতে তিনি নিজের শরীরের পরিমাপ শেয়ার করেছেন। যেখানে তিনি নিজেকে ফ্যাশন মডেল হিসাবে বর্ণনা করেছেন।

অস্ট্রিয়ান সংবাদমাধ্যম হিউতের বরাত দিয়ে ইয়াহু নিউজ বলছে, বর্তমানে ভিয়েনায় বসবাস করেন জেসি। এখন পর্যন্ত তিনবার স্তনের অস্ত্রোপচার করেছেন তিনি। শুধু তাই নয়, বার্বি ডলের অবয়ব পেতে নাক, ঠোঁট এবং নিতম্বেও সার্জারি করেছেন এই মডেল। তিন বছর ধরে সার্জারিতে তার ব্যয় হয়েছে প্রায় ৭৩ হাজার ডলার।

হিউতের সঙ্গে আলাপকালে জেসি বলেছেন, তার আরও অস্ত্রোপচারের দরকার। তবে এই রূপান্তর তার পরিবারের সদস্যরা ভালোভাবে নেননি বলে জানিয়েছেন। পরিবারের সদস্যরা তাকে ফোনে ব্লক করে রেখেছেন। এমনকি মেসেজও পাঠাতে পারেন না তিনি।

জেসি বলেন, এটি অত্যন্ত দুঃখজনক। আমি তাদের সঙ্গে; বিশেষ করে আমার ভাই এবং দাদা-দাদীর সাথে যোগাযোগ করতে চাই। আমি বুঝতে পারছি না কেন তারা এমন আচরণ করেছেন। কারণ আমি শারীরিক অবয়ব পরিবর্তন করেছি।

২১ বছর বয়সী এই তরুণী বলেন, শিক্ষার ব্যাপারেও তার বাবা-মায়ের মতামত ছিল খুব রক্ষণশীল। তাকে রক্ষণশীল কাপড় পরিধানের নির্দেশ দিয়েছিলেন বাবা-মা। কিন্তু ১৭ বছর বয়সে নিজের শারীরিক পরিবর্তন আনার জন্য বাবা-মায়ের বাড়ি ত্যাগ করেন তিনি।

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »

Translate »