শুক্রবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩

হোয়াটসঅ্যাপ লিংকে ক্লিক করতেই টাকা গায়েব! ঠেকাবেন যেভাবে

শেয়ার করুন

হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। হোয়াটসঅ্যাপ ছাড়া এখন অনেকের জীবন অচল। যে অ্যাপের এত চাহিদা, সেই অ্যাপেই ওত পেতে রয়েছে বিপদ।

হোয়াটসঅ্যাপে একটি অজানা নম্বর থেকে মেসেজ পেয়েছিলেন ভারতের পাঞ্জাবের চণ্ডীগড়ের এক বাসিন্দা। কৌতূহলবশত সেই লিংকে ক্লিক করতেই সর্বনাশ।

ওই ব্যক্তির অ্যাকাউন্ট থেকে মুহূর্তেই গায়েব হয়ে যায় ১৭ লাখ ভারতীয় রুপি। তদন্তে নেমে সাইবার পুলিশ জানতে পারে, ওই ব্যক্তির ফোন হ্যাক করে টাকা গায়েব করা হয়েছে। আর তা করা হয়েছে ওই লিংকের মাধ্যমে।

এ ধরনের অপরাধের ঘটনা এখন প্রায়ই ঘটছে। আর তাই হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের আরও সতর্ক হওয়া জরুরি। সামান্য অসাবধানতায় বিপদে পড়তে হতে পারে। কীভাবে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত রাখবেন?

হোয়াটসঅ্যাপে ‘টু-স্টেপ ভেরিফিকেশন’ নামে একটি অপশন রয়েছে। আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত রাখতে এই অপশনটি ব্যবহার করা জরুরি।

‘টু-স্টেপ ভেরিফিকেশন’ অপশনে ক্লিক করলে আপনাকে ৬ নম্বরের একটি পিন সেট করতে হবে। ওই পিন নম্বরটি ব্যবহার করেই আপনার অ্যাকাউন্ট যাচাই (ভেরিফাই) করা যাবে। যার ফলে আপনার অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত থাকবে। সহজেই অন্য কেউ আপনার অ্যাকাউন্টে হানা দিতে পারবে না।

অনেক সময়ই অজানা নম্বর থেকে মেসেজ পান বলে অভিযোগ করেন হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীরা। কেউ কেউ আবার সেই মেসেজের জবাবও দেন। আবার অনেকে সেই অচেনা ব্যক্তি বা নারীর সঙ্গে ভাব জমান। সাইবার বিশেষজ্ঞদের মতে, এটা খুবই বিপজ্জনক।

অর্থাৎ, অজানা নম্বর থেকে মেসেজ পেলে সাবধান! কে মেসেজ করেছেন সে ব্যাপারে ভাল করে জানুন। আর তা সম্ভব না হলে সেই মেসেজ এড়ান। কোনো অচেনা লিংকে ক্লিক করবেন না।

অজানা নম্বর থেকে মেসেজ পেলে, প্রয়োজনে সেই নম্বরটি ব্লক করুন। না হলে, রিপোর্ট করুন।

হোয়াটসঅ্যাপে ‘প্রাইভেসি সেটিং’ অপশন রয়েছে। আপনার ডিসপ্লে ছবি, হোয়াটসঅ্যাপ স্টেটাস কারা দেখতে পারবেন, তা নিয়ন্ত্রণ করা যায় ওই অপশনে। নিজের পরিচিত বৃত্তের বাইরে অচেনা কেউ যাতে আপনার হোয়াটসঅ্যাপের ডিসপ্লে ছবি না দেখতে পান, তা ওই সেটিংয়ে গিয়ে ঠিক করুন।

হোয়াটসঅ্যাপে নানা ধরনের গ্রুপে আমরা থাকি। সে অফিসের গ্রুপ হোক কিংবা পরিবার, বন্ধুদের গ্রুপ। তবে অনেক সময়ই দেখা যায়, যে কেউ আপনাকে কোনো গ্রুপে যোগ করে দেন। এই প্রবণতা ঠেকাতে কারা আপনাকে কোনো গ্রুপে যোগ করতে পারবেন, তা নিয়ন্ত্রণ করা যায় ‘প্রাইভেসি সেটিং’ অপশনে।

অফিসের কাজের জন্য অনেক সময়ই আমরা কম্পিউটার বা ল্যাপটপে হোয়াটসঅ্যাপ ওয়েব ব্যবহার করি। এ জন্য ‘লিংক ডিভাইস’ করতে হয়। তবে কাজ শেষের পর অবশ্যই লগ আউট করা জরুরি।

আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টে গিয়ে ‘লিংক ডিভাইস’ অপশনে নিয়মিত নজর দেওয়ার দরকার। অন্য কোনও ডিভাইসের সঙ্গে আপনার অ্যাকাউন্ট যুক্ত রয়েছে কি না, তা জানা জরুরি।

যদি দেখেন, আপনার হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্টটি অন্য কোনও ডিভাইসের সঙ্গে যোগ করা রয়েছে অথচ আপনি করেননি, তা হলে সঙ্গে সঙ্গে লগ আউট করতে হবে।

কখনোই হোয়াটসঅ্যাপে অজানা কারও পাঠানো লিংকে ক্লিক করবেন না। যদি দেখেন কোনো সন্দেহজনক মেসেজ বা লিংক পেয়েছেন, সঙ্গে সঙ্গে তা এড়িয়ে চলুন।

হোয়াটসঅ্যাপে কখনো ব্যক্তিগত তথ্য, যেমন ফোন নম্বর, ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডের নম্বর, পাসওয়ার্ড কারও সঙ্গে শেয়ার করবেন না। এই পদ্ধতিগুলি মেনে চললেই হ্যাকার বা অপরাধীদের হাত থেকে হোয়াট্‌সঅ্যাপ অ্যাকাউন্টকে সুরক্ষিত রাখতে পারবেন সহজই।

শেয়ার করুন »

লেখক সম্পর্কে »

মন্তব্য করুন »

Translate »