একবার চার্জে ১২০০ কিলোমিটার চলবে যে বৈদ্যুতিক গাড়ি


বাংলাদেশের কণ্ঠ ডেস্ক প্রকাশের সময় : অগাস্ট ১১, ২০২৩, ৮:৫১ অপরাহ্ন /
একবার চার্জে ১২০০ কিলোমিটার চলবে যে বৈদ্যুতিক গাড়ি

বর্তমান সময়ে জ্বালানির খরচ থেকে বাঁচতে অনেকেই বৈদ্যুতিক গাড়ি ব্যবহার করছেন। এই সুযোগে বৈদ্যুতিক গাড়ির বাজার নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে টাটা, মারুতি, টয়োটা। বর্তমানে এই কোম্পানির গাড়িগুলো একবার চার্জ দিলে ৫০০-৮০০ কিলোমিটার পর্যন্ত রেঞ্জ দেয়। তবে এবার টাটা-মারুতিকে টেক্কা দিয়ে জাপানি কোম্পানি টয়োটা এমন একটি গাড়ি বাজারে আনছে যা একবার চার্জ দিলে ১২০০ কিলোমিটার পর্যন্ত চলবে। গাড়িট প্রস্তুত করতে ইতোমধ্যে সলিড স্টেট ব্যাটারি নিয়ে কাজ শুরু করে দিয়েছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি।

বর্তমানে সর্বোচ্চ রেঞ্জ যুক্ত যে বৈদ্যুতিক গাড়ি রয়েছে তাতে ফুল চার্জ দিলে ৮৩০ কিলোমিটার পর্যন্ত চালো যায়। তবে এই গাড়িটির দাম মধ্যবিত্তের লাগালের বাইরে। গাড়ির বাজার দর ১ দশমিক ৪ মিলিয়ন ডলার।

এদিকে নতুন গাড়ির বিষয়ে টয়োটা জানায়, তারা যে সলিড স্টেট ব্যাটারি নিয়ে কাজ করছে তা ফুল চার্জ দিলে ১২০০ কিলোমিটার রেঞ্জ পাওয়া যাবে। এছাড়া এটি দ্রুত গতিতে চার্জও নেবে। এই বিপুল মাইলেজ সম্পন্ন ব্যাটারিটি মাত্র ১০ মিনিটে ফুল চার্জ হয়ে যাবে। তবে নতুন এই গাড়ির দাম কম রাখাই একটি বড় চ্যালেঞ্জ হতে পারে সংস্থাটির জন্য ।

তবে টয়োটার ব্যবসা সফল করেছে জ্বালানি চালিত গাড়ি। গত এক বছরে সারা বিশ্বে ৯৫ লাখ জ্বালানি চালিত গাড়ি বিক্রি করেছে টয়োটা। যেখানে অন্য কোম্পানিগুলো মের ধারে কাছেও নেই। তবে বৈদ্যুতিক গাড়ির ক্ষেত্রে অনেকটা পিছিয়ে আছে টয়োটা।

জানা গেছে, বৈদ্যুতিক গাড়িতে সফলতা পেতে প্যানাসনিকের সঙ্গে জোট বেধে ব্যাটারি বানাচ্ছে টয়োটা। বৈদ্যুতিক পণ্য প্রস্তুতকারী সংস্থাটিকে সঙ্গে নিতে ইতোমধ্যে স্বপ্ন বাস্তবায়নে নেমে পড়েছে টয়োটা। ইতোমধ্যে বিশ্বের সেরা ২০০ ইঞ্জিনিয়ারকে নিয়োগ দিয়েছে সংস্থা দুটি।