রাজনৈতিক উপদেষ্টার চেয়ারেঃ কবির বিন আনোয়ার


বাংলাদেশের কণ্ঠ ডেস্ক প্রকাশের সময় : জানুয়ারী ৬, ২০২৩, ২:০১ অপরাহ্ন /
রাজনৈতিক উপদেষ্টার চেয়ারেঃ কবির বিন আনোয়ার

আজকালের কন্ঠ ডেস্কঃ ০৬ জানুয়ারি ২০২৩

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রয়াত রাজনৈতিক উপদেষ্টা ও আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান এইচ টি ইমামের চেয়ারে বসলেন সদ্য সাবেক মন্ত্রিপরিষদ সচিব কবির বিন আনোয়ার। গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ধানমন্ডি আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে যান তিনি। এ সময় দলের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের তাঁকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান। পরে দলের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ এবং দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া তাঁকে নিয়ে দলের নির্বাচনী অফিসে এইচ টি ইমামের কক্ষে আসেন। ড. সেলিম মাহমুদ ও বিপ্লব বড়ুয়া সেখানে তাঁকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান। পরে কবির বিন আনোয়ার ড. সেলিম মাহমুদ ও ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়াকে নিয়ে ওই রুমে বসে বেশকিছু সময় আলাপ করেন। জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম এই কক্ষে বসে দলের নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনা করতেন। তাঁর কক্ষে বসেই কবির বিন আনোয়ারও একই দায়িত্ব পালন করবেন।

এদিকে শোনা যাচ্ছে, কবির বিন আনোয়ার দলের নির্বাচনী কার্যক্রম ছাড়াও দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পেতে যাচ্ছেন। গত বুধবার শেখ হাসিনার সঙ্গে তিনি সাক্ষাৎ করেন। তখন তিনি এমন ইঙ্গিত পান।

এইচ টি ইমাম ২০২১ সালের ৪ মার্চ সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে মারা যান। এরপর রাজনৈতিক উপদেষ্টা পদে কাউকে নেওয়া হয়নি।
এদিকে কবির বিন আনোয়ার দলীয় কার্যালয়ে আসার আগে গতকাল বিকাল থেকেই দলীয় সভানেত্রীর কার্যালয় প্রাঙ্গণে দলের নেতারা অবস্থান করেন। কবির বিন আনোয়ারের নিজ এলাকা সিরাজগঞ্জের নেতা-কর্মীদেরও ফুল নিয়ে অপেক্ষা করতে দেখা যায়। ইমামের বাড়িও ছিল সিরাজগঞ্জে। সরেজমিন সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ের পাশের ভবন দলের নির্বাচনী অফিসের দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা এইচ টি ইমামের কক্ষটি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করতে দেখা যায়। নতুন করে লাগানো হয় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি। ঠিক করা হয় তালা, চাবি।

ক্যাবিনেট সচিবের পদে আনোয়ারের মেয়াদ শেষ হয় ৩ জানুয়ারি। এরপর তাঁর নিয়োগ নবায়ন না হওয়ায় তাঁকে নিয়ে নানা গুঞ্জন চলে। তবে নির্ভার ছিলেন সরকারের এই সিনিয়র সচিব। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বলেছিলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার সিদ্ধান্ত শিরোধার্য।’