‘আজও মিস করি মায়ের শাসন’


বাংলাদেশের কণ্ঠ ডেস্ক প্রকাশের সময় : মে ১৪, ২০২৩, ৭:৪০ অপরাহ্ন /
‘আজও মিস করি মায়ের শাসন’

লাইফস্টাইল : ‘বসে পড়াশোনা করলে ঘুম পাবে। তাই মায়ের নির্দেশ ছিল দাঁড়িয়ে পড়তে হবে। প্রতিদিন সন্ধ্যায় বাড়ির আঙিনায় পেঁপে গাছে হারিকেন ঝুলিয়ে রাখতেন মা। রোজ সন্ধ্যায় সেখানেই পড়তে হতো। শুধু কী তাই, দুই পায়ের মাঝে বাঁশের কঞ্চি দিয়ে রাখতেন। কঞ্চির একমাথা মায়ের হাতের পাশে থাকত, কখনো ঘুমের ঝিমানি এলে কঞ্চি ধরে টান দিতেন।

নিজের অক্ষরজ্ঞান না থাকলেও সন্তানদের পড়াশোনার ব্যাপারে কঠোর ছিলেন মা। মায়ের কারণেই আমাদের (ভাইবোন) শিক্ষার ছোঁয়া পাওয়া। আবেগাপ্লুত কণ্ঠে এভাবেই মা মহিতন নেছাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করেন পাবনার চাটমোহর পৌর মেয়র সাখাওয়াত হোসেন সাখো। শৈশবে ভাত খেয়ে ভেজা হাত মায়ের আঁচলে মোছার সে স্মৃতি যেন পিছু ছাড়ে না এই রাজনীতিবিদকে। তিনি জানান, ২০০৬ সালে মা মারা যাওয়ার পর থেকে তার আদরমাখা শাসনের অভাব বোধ করেন তিনি।

উপজেলার বিলচলন ইউনিয়নের রামনগর গ্রামে বেড়ে ওঠা ৮ ভাই বোনের মধ্যে পঞ্চম সাখাওয়াত হোসেন সাখো। ছোট থেকেই বুদ্ধি খাটাতে পছন্দ করা মানুষটির ক্লাসের বইয়ের চেয়ে গল্পের বইতে ঝোঁক ছিল বেশি। মা গল্পের বই পড়তে উৎসাহও দিতেন। তবে পড়তে হতো জোরে শব্দ করে, নইলে পিঠে পড়ত কঞ্চির বাড়ি। বাবা মরহুম আক্কেল আলীর সঙ্গে বন্ধুর মতো মিশলেও মা মহিতন নেছা কঠোর শাসনের মধ্যে রাখতেন সন্তানদের।

জামা-কাপড় কিনে দেওয়া, বন্ধু নির্ধারণ করা থেকে শুরু করে সবকিছুতেই মায়ের মতই ছিল শেষ কথা। মাঠে জমি না কিনে ‘সন্তানদের সম্পদ’ করে গড়ে তোলাই ছিল তার মূল লক্ষ্য। নিজের সন্তানদের লালন-পালনে সব সময় মায়ের সেই শিক্ষাই মেনে চলেছেন তিনি। নিজের সাফল্যের পুরো কৃতিত্বই মা মহিতন নেছাকেই দিতে চান পৌর মেয়র সাখাওয়াত হোসেন সাখো।