সিগারেট ছাড়ার ১০ সহজ উপায়


বাংলাদেশের কণ্ঠ ডেস্ক প্রকাশের সময় : জুন ৮, ২০২৩, ৬:১৫ অপরাহ্ন /
সিগারেট ছাড়ার ১০ সহজ উপায়

লাইফস্টাইল : ধূমপান শরীরের জন্য ক্ষতিকর, এই কথা সবারই জানা। তারপরও অনেকে অভ্যাস ত্যাগ করতে পারেন না। কাজটা যতটা ভাবা সহজ, ঠিক ততটাই চ্যালেঞ্জিং। এদিকে, প্রতিদিন একাধিক সিগারেট পান করার কারণে শরীরে তৈরি হচ্ছে নানা জটিলতা। ফুসফুস তো বটেই, সঙ্গে শরীরের অন্যান্য অঙ্গের ওপর খারাপ প্রভাব পড়ছে।

ইউএস সেন্টার অব ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন বা সিডিসি সমীক্ষা অনুসারে, ধূমপায়ীরা অধূমপায়ীদের তুলনায় ১০ বছর কম বাঁচেন। এ ছাড়া তাদের মধ্যে ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, স্ট্রোক বা অন্যান্য স্বাস্থ্যগত পরিস্থিতির ঝুঁকি অনেকটাই বেড়ে যায়। নিকোটিন এবং তামাক জাতীয় দ্রব্যে অত্যন্ত আসক্তি হতে পারে বলে অভ্যাস ত্যাগ করা মানুষের পক্ষে খুব কঠিন। তবে মানুষের কাছে আসাধ্য কিছু নেই। সব অসম্ভবকে সম্ভব করে তুলতে পারে মানুষ।

নিরোটিন রিপ্লেসমেন্ট থেরাপি : ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ড্রাগ এবিউজের মতে, এনআরটি বা নিকোটিন রিপ্লেসমেন্ট থেরাপি ধূমপান ছাড়ার চেষ্টা করার সময় প্রত্যাহারের লক্ষণগুলো পরিচালনা করতে সহায়তা করে। নিকোটিন প্রতিস্থাপন থেরাপি অন্যান্য বিষাক্ত পণ্য ছাড়াই ন্যূনতম পরিমাণ নিকোটিন প্রদান করে। টিংলিং, বমি বমি ভাব, মেজাজের পরিবর্তন, ঘনত্বের অভাব ইত্যাদি উপসর্গগুলো নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে।

খাদ্যতালিকাগত পরিবর্তন : সিগারেট খাওয়ার অভ্যাস ত্যাগ করার জন্য আপনার যাত্রা আপনার রুচিবোধ এবং আপনার ক্ষুধাকেও প্রভাবিত করতে পারে। আপনার জীবনযাত্রায় এই বিশাল পরিবর্তনের মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হলো, আপনাকে অতিরিক্ত খাবার খেয়ে ক্ষুধা মেটাতে হবে না। পাবমেডের মতে, ধূমপানের ফলে ভিটামিন সি শরীরকে অক্সিডেটিভ স্ট্রেস মোকাবেলা করতে সাহায্য করে। অন্যদিকে, ভিটামিন বি স্ট্রেস বিরোধী হরমোনের বৃদ্ধিকে উন্নীত করতে পারে।

আকুপাংচার : ইউএস এনআইএইচ-এর মতে, আকুপাংচার ধূমপান ছাড়ার চেষ্টা করা লোকেদেরও সাহায্য করতে পারে। আকুপাংচার আপনাকে স্ট্রেস-হরমোন প্রতিক্রিয়া উপশম করতে, নিকোটিনের আসক্তি কমাতে এবং এন্ডোমরফিন নামক অনুভূতি-ভালো হরমোন নিঃসরণে সহায়তা করে।

বাড়িয়ে দাও সাহায্যের হাত : ধূমপান ত্যাগ করা একটি চ্যালেঞ্জিং কাজ। আপনার বন্ধু এবং পরিবারের কাছ থেকে সাহায্য চাইতে দ্বিধা করবেন না। আপনি যদি আপনার বন্ধুদের ধূমপান ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত সম্পর্কে জানান, তাহলে তারা আপনাকে সাহায্য করতে পারে এবং আপনার কাজের জন্য আপনাকে দায়বদ্ধ রাখতে পারে। থেরাপিস্ট এবং ডাক্তার এবং এমনকি অনলাইন সহায়তা গোষ্ঠীগুলো একজন ধূমপায়ী থেকে একজন অধূমপায়ী পর্যন্ত আপনার যাত্রাকে সহজ করতে সাহায্য করতে পারে।